thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৬,  ১৪ রবিউস সানি 1441

‘চোখকান খোলা রাখুন, সামনে কিছু হচ্ছে’

২০১৯ অক্টোবর ০৯ ২২:৫৮:৩৬
‘চোখকান খোলা রাখুন, সামনে কিছু হচ্ছে’

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: হঠাৎ করেই তৎপর হয়েছে বিএনপি। দেশের সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে আজ বিনপির স্থায়ী কমিটির বৈঠক বসেছে দলের চেয়ারপার্সনের গুলশান কার্যালয়ে। সেই বৈঠকে টেলিফোনে যুক্ত হয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান লন্ডনে পলাতক তারেক জিয়া।

দলের নেতাকর্মীদের তিনি বলেছেন যে, ‘কিছু একটা ঘটছে। চোখকান খোলা রাখুন।‘ তিনি দলের নেতাকর্মীদের দলের কর্মসূচি এবং নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ বাড়ানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছেন। একইসঙ্গে তারেক জিয়া দলের নেতাকর্মীদেরকে তৃণমূল পর্যন্ত কর্মসূচি গ্রহণ করা এবং চোখকান খোলা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন বলে দলের একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

রাজনৈতিক পর্যবেক্ষক মহল মনে করছে যে, আওয়ামী লীগ যে গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছে তার ফলে দলটি একরকম কোণঠাসা অবস্থায় রয়েছে। দলের সাংগঠনিক তৎপরতা শূন্যের কোঠায় নেমে এসেছে। এই অবস্থায় বিএনপি মাঠ দখল করতে চায়। আবার অন্য একটি সূত্র বলছে যে, তারেক জিয়া মনে করছেন এই শুদ্ধি অভিযানের ফলে হতাশ আওয়ামী লীগ। সারাদেশে যে আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে জনমত তৈরি হয়েছে সেই সুযোগটি কাজে লাগানো দরকার। সুযোগটি কাজে লাগিয়ে সরকারের বিরুদ্ধে কিছু একটা করা যায় কিনা সেরকম একটি নীল নকশা প্রণয়ন করছেন তারেক জিয়া বলে একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র নিশ্চিত করেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, বিএনপি এখন অন্য সময়ের চেয়ে চাঙ্গা হয়েছে। প্রশাসনের এখন বিএনপির বিরুদ্ধে অবস্থানের চেয়ে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অনিয়ম, দুর্নীতির সঙ্গে যারা জড়িত তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণেই বেশি মনোযোগী। তবে একটি সূত্র বলছে, তারেক জিয়া কখনো সুস্থধারার রাজনীতির কথা চিন্তা করেনা, সবসময় তারেকের মাথায় থাকে একটা পরিস্থিতি তৈরি করে সেই পরিস্থিতকে কাজে লাগানো। বাংলাদেশে সাম্প্রতিক শুদ্ধি অভিযান, আওয়ামী লীগের কোণঠাসা অবস্থান, আবরার হত্যাকাণ্ড নিয়ে অন্যকোন অরাজনৈতিক খেলায় তারেক জিয়া মাততে চান কিনা এ নিয়ে অনেকেরই সন্দেহ রয়েছে।

উল্লেখ্য যে, যখন কোটাবিরোধী আন্দোলন তখন তারেক জিয়া তাঁর ক্যাডারদেরকে মাঠে নামিয়েছিল এবং এই আন্দোলনের মাধ্যমে একটা পরিস্থিতি তৈরি করে সরকারকে ফেলে দেওয়ার একটা নীল নকশা প্রণয়ন করেছিল।

সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো বলছে, ষোড়শ সংশোধনীর রায়কে নিয়ে আপিল বিভাগ যখন হাইকোর্টে মামলা করেছিল আপিল বিভাগের রায়ের পরও তারেক জিয়া বাংলাদেশে জুডিশিয়াল ক্যু করার চেষ্টা করেছিলেন। বিএনপির একজন নেতাই স্বীকার করেছেন যে, তারেক জিয়া কখনও সুস্থ স্বাভাবিক ধারার রাজনীতিতে বিশ্বাস করেনা। সবসময় সে একটি পরিস্থিতি তৈরি করতে চায় যে পরিস্থিতিতে যেন সরকার চলে যেতে বাধ্য হয়। সেরকম একটি পরিস্থিতি তৈরি করার জন্য আবার তারেক চেষ্টা করছে কিনা সেই প্রশ্ন অনেকের মধ্যে উঠেছে।

তবে রাজনৈতিক মহল বলছে যে, তারেক জিয়া দীর্ঘ ১১বছর ধরে দেশে নাই। কাজেই বাংলাদেশে রাজনীতির বাস্তবতা যে পরিবর্তন হয়েছে এবং রাজনীতির যে বিন্যাসগত ওলটপালট হয়েছে সেই সম্পর্কে তারেক জিয়ার ধারণা নেই এবং তারেক জিয়া ওইরকম মেধাসম্পন্ন নন। যারফলে ষড়যন্ত্র করার যে মতলব খোঁজেন তা বরাবরের মত এবারও ব্যর্থ হয়ে যাবে।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/অক্টোবর ০৯,২০১৯)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

রাজনীতি এর সর্বশেষ খবর

রাজনীতি - এর সব খবর