thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৯ ফাল্গুন ১৪২৬,  ২৫ জমাদিউস সানি 1441

পাকিস্তানের পূর্ব অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন শান্ত

২০২০ জানুয়ারি ২০ ১৯:৫৪:৫২
পাকিস্তানের পূর্ব অভিজ্ঞতা কাজে লাগাবেন শান্ত

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: ২০০৯ সালে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট দলের উপর সন্ত্রাসী হামলার কারণে দীর্ঘ সময়ের জন্যে নির্বাসনে যেতে হয়েছে পাকিস্তানকে। সবশেষ সেই শ্রীলঙ্কার হাত ধরেই প্রায় ১০ বছর পর টেস্ট ক্রিকেট অনুষ্ঠিত হয়েছে পাকিস্তান। শ্রীলঙ্কার পর দ্বিতীয় দল হিসেবে পাকিস্তান সফরে টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ।

সাম্প্রতিক বছরগুলোয় অবশ্য বিচ্ছিন্নভাবে সফর করেছে কয়েকটি দল, গত ডিসেম্বরে টেস্টও খেলেছে শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশ পুরুষ জাতীয় দল পাকিস্তান সফর না করলেও কয়েক দফায় নারী জাতীয় দল, ইমার্জিং দল ও বয়সভিত্তিক দল সফর করেছে পাকিস্তান।

২০১৮ সালে ইমার্জিং এশিয়া কাপ খেলতে পাকিস্তান যাওয়া দলটির তিনজন আছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে আসন্ন টি-টোয়েন্টি সিরিজের দলেও। তারা হলেন নাজমুল হোসেন শান্ত, শফিউল ইসলাম ও আফিফ হোসেন ধ্রুব। এদের মধ্যে নাজমুল হোসেন শান্ত হচ্ছেন এই বিপিএলে শতক পাওয়া একমাত্র দেশীয় ক্রিকেটার।

ঢাকা প্লাটুনের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৫ রানের ইনিংসটা নতুন করে চিনিয়েছেন শান্তকে। বাঁহাতি ওপেনার পরের ম্যাচে করেছিলেন অপরাজিত ৭৮। মূলত এই দুটো ইনিংসেই শান্তকে নিয়ে এসেছে পাকিস্তান স্কোয়াডে। অভিজ্ঞতা থাকায় সফরের নিরাপত্তা নিয়ে আপাতত চিন্তিত নন নাজমুল হোসেন শান্ত। বরং আসন্ন টি-টুয়েন্টি সিরিজে সব মনোযোগ দিতে চাচ্ছেন এই ওপেনার।

শান্ত বলেন, ‘পেশাদার ক্রিকেটার হিসেবে খেলাটায় মনোযোগ রাখছি। যেহেতু এগুলো আমাদের হাতে নেই, এগুলো নিয়ে চিন্তা করছি না। একবারও ভাবিনি। গত বারও আমি গিয়েছি পাকিস্তানে (২০১৮ সালে ইমার্জিং টিমের হয়ে)। এগুলো নিয়ে একবারেই চিন্তা করছি না। ম্যাচ নিয়ে ভাবছি।’

ইমারজিং দলের হয়ে পাকিস্তান সফরের অভিজ্ঞতাকে এই সফরে কাজে লাগানোর চেষ্টা করবেন বলে জানিয়েছে শান্ত। লাহোরের মাটিতে ব্যাটসম্যানরা সুবিধা পাবে বলে মনে করেন এই ওপেনার। টি-টোয়েন্টি র‍্যাংকিংয়ে বর্তমানে এক নম্বর অবস্থান পাকিস্তানের। সিরিজটি চ্যালেঞ্জিং হলেও দল হিসেবে খেললে ভালো ফল আসতে পারে মনে করেন শান্ত।

তিনি বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় যে আমরা যে উইকেটে খেলে এসেছি, সেটা খুব ভালো ছিল। স্পোর্টিং উইকেট ছিল। বোলাররা যদি ভালো জায়গায় বোলিং করে তাহলে বোলাররা সাহায্য পায়, ব্যাটসম্যানরাও সাহায্য পায়। যদি আমাদের পরিকল্পনা এবং শক্তিমত্তা অনুযায়ী খেলতে পারি (টি-টোয়েন্টি সিরিজে) তাহলে অবশ্যই বড় রান করা এবং বোলাররা নিয়মিত উইকেট নেওয়ার সামর্থ্য রাখে।’

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/জানুয়ারি ২০,২০২০)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

খেলা এর সর্বশেষ খবর

খেলা - এর সব খবর