thereport24.com
ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭,  ৫ শাওয়াল ১৪৪১

করোনায় মৃতদেহ: বেশ কয়েক ঘণ্টা না ধরাই উত্তম

২০২০ এপ্রিল ১০ ০৮:৩৯:৫০
করোনায় মৃতদেহ: বেশ কয়েক ঘণ্টা না ধরাই উত্তম

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক: বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে নতুন ভাইরাস করোনা। এর ব্যাপ্তি বাংলাদেশেও। ইতোমধ্যে দেশের বিভিন্ন এলাকা লকডাউন ঘোষণা করা হয়েছে। মারা গেছেন ২০ জন মানুষ। মৃত্যুদেহ থেকে ভাইরাস সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কায় মৃত্যুদেহের কাছে যাচ্ছেন না আত্মীয়-স্বজনরা। কিন্তু মৃত্যুদেহ থেকে সংক্রমিতের আশঙ্কা নেই বলা হলেও এর বিপক্ষেও মত রয়েছে।

বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ভাইরাস মৃত্যুদেহ থেকে সংক্রামিত হতে পারেনা। আবার কেউ বলছেন সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায় না। তবে মৃত্যুদেহ বেশ কয়েক ঘণ্টা না ধরাই শ্রেয় বলে মত দেন তারা।

করোনায় সংক্রামিতের মৃত্যুদেহ থেকে এ রোগ ছড়ায় না বা সম্ভাবনাও নেই বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক মহাপরিচালক এবং বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্তায় কর্মরত অধ্যাপক ডা. শাহ মনির হোসেন।

তিনি জানান, ব্যাক্টেরিয়া যেভাবে ছড়ায় ভাইরাস তেমনিভাবে ছড়ায় না। কোনো ভাইরাসই ডেথ (মৃত্যু) সেলে মাল্টিপ্লাই করতে পারে না। এটি লিভিং বা জীবিত দেহেই মাল্টিপ্লাই করতে পারে। মানুষ মারা গেলে তার শরীরের সকল সেলই মারা যায়। সুতরাং মৃত্যুদেহ থেকে করানা ভাইরাস ছড়ানোর সুযোগ নেই। তবে করোনায় মারা যাওয়া ডেড বডি ৩-৪ ঘণ্টা পরে স্পর্শ ও সৎকার করাই ভালো।

বাংলাদেশ স্বাস্থ্য অধিদফতরের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা বিভাগের (আইইডিসিআর) সিনিয়র সায়েন্টিফিক অফিসার ডা. এএসএম আলমগীর বলেন, করোনায় মৃত্যু দেহের শরীরে অর্থাৎ ডেড বডির নাকে ও মুখে বেশ কয়েক ঘণ্টা ভাইরাস লেগে থাকার সম্ভাবনা বেশি। এ মৃত্যুদেহ যখন কাপড়ে বা বাক্সে পুরে দেওয়া হয় তখন এর থেকে সংক্রামণের সম্ভাবনা কম। তারপরেও যেহেতেু এটি নতুন ধরণের ভাইরাস, এর গতি প্রকৃতিও আলাদা এ কারণে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করা প্রয়োজন।

তিনি অরো বলেন, আমরা অধিক সতর্কতার কারণে বিশেষ ব্যবস্থার মাধ্যমে মৃত্যু দেহের সৎকারের ব্যবস্থা করে থাকি। ডেডবডি যে ধর্মেরই হোক না কেনো তাকে যথাযোগ্য মর্যাদা দিয়েই সৎকার করের ব্যবস্থা করা হয়। যিনি ডেডবডি গোসল করান তাকেও পিপিই (ব্যক্তিগত নিরাপত্তা উপকরণ) ব্যব্যস্থার মাধ্যমেই করানো হচ্ছে। কবর দেওয়ার সময়ে জানাজা এবং কবর দেওয়ার পরে কবরে ব্লিসিং পাউডার দিয়ে বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।

(দ্য রিপোর্ট/আরজেড/১০এপ্রিল,২০২০)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

স্বাস্থ্য এর সর্বশেষ খবর

স্বাস্থ্য - এর সব খবর