thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে 24, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১,  ১৬ জিলকদ  1445

বাংলাদেশ উন্নয়নের একটি সফল গল্প- বিশ্ব ব্যাংক

২০২৩ জানুয়ারি ২৯ ১১:০৭:১৩
বাংলাদেশ উন্নয়নের একটি সফল গল্প- বিশ্ব ব্যাংক

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক:বাংলাদেশকে উন্নয়নের একটি সফল গল্প হিসেবে অভিহিত করেছে বিশ্ব ব্যাংক।দেশের সঙ্গে বিশ্ব ব্যাংকের সম্পর্কের ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষে সংস্থাটির ভেরিফাইড পেজে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে এ মন্তব্য করা হয়েছে।

৩ মিনিটের ওই ভিডিওতে বাংলাদেশ ও বিশ্ব ব্যাংকের সম্পর্কের নানা দিক ও ইতিহাস উঠে এসেছে।ভিডিওর শুরুতেই বলা হয়, আজ বাংলাদেশ একটি সফল উন্নয়নের গল্প। তাদের আছে বিশ্বের সবচেয়ে দ্রুতগতিতে উন্নয়নের অর্থনীতি।
এতে আরও বলা হয়, রেকর্ড সময়ে হ্রাস পেয়েছে দেশটির চরম দরিদ্রতা। খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়েছে।
বিশ্বব্যাংকের ফেসবুক পেজে বলা হয়, আজ থেকে ৫০ বছর আগে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম দরিদ্র দেশ ছিল। একটি যুদ্ধ দেশটির অবকাঠামোকে ধ্বংস করে দিয়েছিল, অর্থনীতির পথ হয়েছিল রুদ্ধ। পরিবর্তনটা তাই উল্লেখযোগ্য। মানুষের জীবনেও পড়েছে তার প্রভাব।
এতে বলা হয়, বাংলাদেশের এই যাত্রায় সঙ্গী ছিল বিশ্ব ব্যাংক। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশের যেসব প্রতিবন্ধকতা এসেছে বিশ্ব ব্যাংক সবসময় বাংলাদেশকে সমর্থন করে এসেছে।
এতে আরও বলা হয়, প্রথম নজর ছিল মানুষের উন্নয়নে। স্বাস্থ্য ও চিকিৎসায় সহায়তা বাংলাদেশের মানুষের সুস্থতা ও দীর্ঘায়ু বৃদ্ধিতে সহায়তা করেছে।
ভিডিওতে আরও বলা হয়, পরিবার পরিকল্পনার প্রকল্প বাংলাদেশের প্রজনন স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যার হারে প্রভাব রেখেছে।
"এছাড়াও উদ্ভাবনী শিক্ষা উন্নয়নে সহায়তা দেওয়া হয়েছে। স্কুলের প্রথম শ্রেণি থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা অর্থ সহায়তা পেয়েছে" জানায় বিশ্ব ব্যাংক।
সংস্থাটির ফেসবুক পেজে পোস্ট করা ভিডিওতে বলা হয়, এটি বাংলাদেশে বিশ্বের অন্য অনেক দেশের মধ্যে অন্যতম একটি দেশে পরিণত করেছে। যাদের প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ছেলে-মেয়েদের সমানাধিকার নিশ্চিত করা হয়েছে।
এতে বলা হয়, নারীর ক্ষমতায়নের মধ্য দিয়ে লিঙ্গ সমতা নিশ্চিত হওয়ায় দারিদ্র্য নিরসনের কৌশলে ভূমিকা রেখেছে শ্রমজীবী নারীরা।
ভিডিওতে বলা হয়, আরেকটি দিকে নজর ছিল স্কুল, হাসপাতাল ও বাজার গড়ে দিয়ে মানুষের মধ্যে আন্ত:সম্পর্ক বৃদ্ধি করা।
এতে আরও বলা হয়, দেশের পূর্ব ও পশ্চিম অঞ্চলকে যুক্ত করতে বঙ্গবন্ধু ব্রিজ নির্মাণেও সঙ্গী ছিল বিশ্বব্যাংক। এতে ঢাকার সঙ্গে যাতায়াতের অর্ধেক দূরত্ব কমে আসে। আশপাশের মানুষের অর্থনৈতিক অন্তত ৩০% উন্নতি ঘটে।
বিশ্ব ব্যাংক জানায়, সবার জন্য বিদ্যুৎ প্রকল্পে সরকারকে সহযোগিতার মধ্য দিয়ে বিদ্যুৎ উৎপাদন, রক্ষণাবেক্ষণ ও বিতরণ করা হয়। এছাড়া নবায়নযোগ্য জ্বালানি অর্থাৎ সৌর বিদ্যুতেও সহযোগিতা করা হয়েছে।
এতে আরও বলা হয়, এটি শিশুদের শিক্ষার হার বৃদ্ধি, নারীর নিরাপত্তা দিয়েছে। এছাড়া বাজারগুলোকে সচল রেখেছে।
ভিডিওতে বলা হয়, বিশ্ব ব্যাংক ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রকল্পকেও সমর্থন করেছে। সহজ মাধ্যম হিসেবে স্মার্ট আইডি কার্ড ও মোবাইল ব্যাংকিং সেক্টরেও সহায়তা করা হয়েছে।
এতে বলা হয়, ইন্টারনেট ভিত্তিক বিভিন্ন সহায়তার মাধ্যমে অনলাইন ভিত্তিক নানা ব্যবসায় সুবিধা করে দেওয়া হয়েছে। যা বাংলাদেশ সরকারকে কোটি টাকার রাজস্ব এনে দিয়েছে।
জলবায়ু পরিবর্তন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনাতেও বিশ্ব ব্যাংক বাংলাদেশের পাশে ছিল জানিয়ে তিনি বলেন, নদীবিধৌত ঝড়ের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকায় বিশেষত ভোলায় ১ হাজারের বেশি সাইক্লোন সেন্টার করে দিয়েছে বিশ্ব ব্যাংক।
সংস্থাটি আরও জানায়, উপকূলের নিরাপত্তায় ব্যবস্থা নিয়ে আশপাশের জনগণের কাছে পূর্বাভাস পৌঁছানোর ব্যবস্থা করে দেওয়া হয়েছে। যা ঝড় ও সাইক্লোনে হতাহত কমাতে সহায়তা করবে।
এতে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের লড়াইয়ে বাংলাদেশ হয়ে উঠেছে প্রথম সারির যোদ্ধা।ভিডিওতে আরও বলা হয়, বাংলাদেশের উন্নয়ন সহায়তায় বিশ্ব ব্যাংক সবচেয়ে বড় সহযোগী। এটি বাংলাদেশকে স্থিতিশীল, উন্নয়ন ও উদ্ভাবনমুখী হিসেবে দেখতে চায়।
এতে বলা হয়, বাংলাদেশ এখন নিজেদের উন্নয়ন ও উদ্ভাবনের সাফল্যের গল্প গাথা লিখছে।এই সংস্থা জানায়, বিশ্ব ব্যাংক সেখানে সহযোগী হতে পেরে ভীষণ গর্বিত।

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

SMS Alert

অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর