thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ৮ কার্তিক ১৪২৭,  ৬ রবিউল আউয়াল 1442

১০৯ রুগ্ন শিল্পের মূল ও প্রকল্প ঋণ অবসায়নের নির্দেশ

২০১৩ ডিসেম্বর ০৭ ১৯:১৩:৩২
১০৯ রুগ্ন শিল্পের মূল ও প্রকল্প ঋণ অবসায়নের নির্দেশ

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : আইসিবিসহ রাষ্ট্রায়ত্ত আটটি বাণিজ্যিক ও বিশেষায়িত ব্যাংকে বস্ত্র খাতের বাইরে ১০৯টি রুগ্ন/বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠানের মূল ঋণ/প্রকল্প ঋণ অবসায়নের নির্দেশ দিয়েছে সরকার।

গত মঙ্গলবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশ বাংলাদেশ ব্যাংক গভর্নর এবং সংশ্লিষ্ট ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বরাবর পাঠানো হয়েছে।

নির্দেশ অনুযায়ী, সংশ্লিষ্ট রাষ্ট্রায়ত্ত (সোনালী, জনতা, অগ্রণী, রূপালী, বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক, রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক, বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট ব্যাংক ও ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ) ব্যাংকগুলোতে বস্ত্র খাতের বাইরে যেসব রুগ্ন/বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠানের মূল ঋণ/প্রকল্প ঋণের পরিমাণ ৫০ লাখ টাকার কম; কিছু শর্ত সাপেক্ষে ওই সব শিল্প প্রতিষ্ঠান এ সুবিধা পাবে।

প্রেরিত নির্দেশমালায় বলা হয়েছে, চিহ্নিত রুগ্ন/বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠানের দায়-দেনা সরকারি আদেশ জারির তারিখ থেকে সর্বোচ্চ ৫ বছরের মধ্যে পরিশোধ করতে হবে এবং ৮ শতাংশ হারে ১ বছরের সুদ আরোপযোগ্য হবে। মূল ঋণ ও ব্যাংকের আয় খাতে স্থানান্তরিত পুঞ্জিভূত সুদ মোট দায়-দেনা হিসেবে বিবেচিত হবে। মোট দায়-দেনা ত্রৈমাসিক ৪টি কিস্তিতে চার বছরে পরিশোধ করতে হবে। অনারোপিত সুদ, সুদ অনিশ্চিত খাতে রক্ষিত সুদ সম্পূর্ণ মওকুফ হবে এবং কস্ট অব ফান্ড বর্তমানে যা আছে তা-ই বিবেচনায় নিতে হবে।

নির্দেশ অনুযায়ী, আয় খাত কোনো অবস্থাতেই ডেবিট করা যাবে না। তবে যে ক্ষেত্রে আরোপিত সুদ ইতোমধ্যে আয় খাতে স্থানান্তর করা হয়নি, সেসব আরোপিত সুদ সম্পূর্ণ মওকুফ হবে। আয় খাতে স্থানান্তরিত সুদের পরিমাণ গ্রাহককে নিয়ম মাফিক ব্যাংক স্টেটমেন্ট আকারে জানাতে হবে। মূল ঋণ ও মামলা খরচ মওকুফ করা হবে না এবং সরকার কোনো সুদ ভর্তুকি দেবে না।

দায়-দেনা পরিশোধের ক্ষেত্রে প্রতিটি ত্রৈমাসিক কিস্তির জন্য একটি করে অগ্রিম চেক নিতে হবে এবং সর্বোচ্চ চার কিস্তির সম-পরিমাণ অর্থ অনাদায়ী হলে এ আদেশে দেওয়া সব সুবিধা বাতিল বলে গণ্য হবে।

ব্যাংক কর্তৃক মওকুফ-উত্তর সিদ্ধান্ত পাওয়া মাত্র সোলেনামা করতে হবে এবং মওকুফ-উত্তর দায়-দেনা ডাউন পেমেন্টের ২ শতাংশ সম-পরিমাণ অর্থের অগ্রিম চেক দিতে হবে, যা পরবর্তী ৯ মাসের মধ্যে নগদায়ন করতে হবে।

ব্যাংকের সঙ্গে ডাউন পেমেন্টের চেক জমা দেওয়ার পর পরই ঋণ পরিশোধ সক্ষমতা সৃষ্টির জন্য ক্রেডিট ইনফরমেশন ব্যুরো’র (সিআইবি) ছাড়পত্র দিতে হবে। দেনা পরিশোধে সময়ের ক্ষেত্রে ব্যাংক, গ্রাহক ও ক্রেতা আগ্রহী হলে ত্রি-পক্ষীয় চুক্তির মাধ্যমে মর্টগেজ করা সম্পত্তি বিক্রয়, ডেভেলপের মাধ্যমে কিংবা কারখানা ভাড়া দেওয়ার মাধ্যমেও সমন্বয় করা যাবে।

আদেশ জারির দুই মাসের মধ্যে ঋণ গ্রহীতাকে সংশ্লিষ্ট ব্যাংকের কাছে আবেদন করতে হবে এবং কোনো প্রতিষ্ঠান যদি ব্যাংকের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি ভঙ্গ করে তাহলে ওই প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে স্থগিত মামলা পুনরুজ্জীবিত করা হবে।

রুগ্ন/বন্ধ শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য সরকার প্রদত্ত সুবিধাসমূহ কার্যকর করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ ব্যাংক বিধি অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবে বলে নির্দেশমালায় উল্লেখ করা হয়েছে।

(দ্য রিপোর্ট/এসআর/সাদি/এমডি/ ডিসেম্বর ০৭, ২০১৩

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অর্থ ও বাণিজ্য এর সর্বশেষ খবর

অর্থ ও বাণিজ্য - এর সব খবর