thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ৫ আশ্বিন ১৪২৫,  ১০ মহররম ১৪৪০

রোধ করা যাচ্ছে না নারী ও শিশু নির্যাতন

২০১৪ জানুয়ারি ০১ ১২:৫৭:০৫
রোধ করা যাচ্ছে না নারী ও শিশু নির্যাতন

আহমদুল হাসান আসিক, দ্য রিপোর্ট : দেশে নারী ও শিশুরা এখনো নিরাপদ নয়। সারাদেশে অব্যাহতভাবে নির্যাতনসহ অপহরণের মতো অনেক ঘটনা ঘটলেও সেগুলো রোধ করতে পারছে না প্রশাসন।

পরিসংখ্যান থেকে জানা যায়, গত এক বছরে ব্যাপকহারে নারী ও শিশু অপহরণের শিকার হয়েছে। ডিসেম্বর ২০১২ থেকে নভেম্বর ২০১৩ পর্যন্ত নারী ও শিশু নির্যাতন এবং অপহরণের ঘটনা ঘটেছে মোট ২০ হাজার ৭৩৭টি।

একই সময়ে নির্যাতনের শিকার হয়েছে ১৮ হাজার ৩০৭ জন নারী ও এক হাজার ৫২৯ জন শিশু। এ ছাড়া অপহরণের শিকার হয়েছেন ৯০১ জন।

পুলিশ সদর দফতরের অপরাধ পরিসংখ্যান থেকে নারী ও শিশু নির্যাতনের ব্যাপকতার এ সব চিত্র পাওয়া যায়।

এদিকে ২০১২ সালে নারী ও শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছিল ২০ হাজার ৯৪৭টি। অপহরণের ঘটনা ঘটে ৮০৫টি।

নারী নির্যাতন : অপরাধ পরিসংখ্যান পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত এক বছরে ধর্ষণের শিকার হন ৩ হাজার ৬৯০ জন নারী। এপ্রিল থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রতি মাসেই তিন শতাধিক নারী ধর্ষণের শিকার হন। এর মধ্যে সেপ্টেম্বরে ৩৭৬ জন ও আগস্ট মাসে ৩৫৬ জন নারী ধর্ষণের শিকার হন। এ ছাড়া বাকি মাসগুলোতে দুই শতাধিক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে।

একই সময়ে এসিডের শিকার হন ৭২ জন নারী। এর মধ্যে আগস্টে ১০ জন ও সেপ্টেম্বরে ১৩ জন নারী এসিডের শিকার হন। এ ছাড়া বিভিন্ন নির্যাতনের ঘটনায় গুরুতর আহত হন ৪২০ জন নারী। এর মধ্যে জুলাই মাসে ৫৪ জন নারী গুরুতর আহত হন।

ধর্ষণ এবং এসিডের ঘটনা ছাড়াও নারীরা বিভিন্নভাবে সামাজিক এবং পারিবারিকভাবে নির্যাতনের শিকার হন। অন্যান্য ঘটনায় নারী নির্যাতনের শিকার হন ১৩ হাজার ৯২৫ জন। এ ছাড়াও বিভিন্ন ঘটনায় প্রতি মাসেই সহস্রাধিক নারী নির্যাতনের শিকার হন।

পরিসংখ্যানে দেখা যায়, সেপ্টেম্বর মাসে ১ হাজার ৮০৮ জন এবং জুলাই মাসে ১ হাজার ৭১৯ জন নারী নির্যাতনের শিকার হয়েছেন।

শিশু নির্যাতন : একই সময়ে নির্যাতনের শিকার হয় ১ হাজার ৫৯০ জন শিশু। শুধু ২০১২ সালের ডিসেম্বর ছাড়া প্রতি মাসেই শতাধিক শিশু নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে জুন এবং সেপ্টেম্বরে দেড় শতাধিক শিশু নির্যাতনের শিকার হয়। জুন মাসে ১৫৭ শিশু ও সেপ্টেম্বরে ১৫৮ শিশু নির্যাতনের শিকার হয়।

অপহরণ : মুক্তিপণ আদায়, পাচারের জন্য এবং অন্যান্য কারণে এক বছরে ৯০১ শিশুকে অপহরণ করে দুর্বৃত্তরা।

এর মধ্যে মুক্তিপণ আদায়ের উদ্দেশে ৬৯ জনকে অপহরণ করা হয়। ৬৭ জনকে পাচারের জন্য অপহরণ করা হয়। অন্যান্য কারণে অপহরণ করা হয় ৭৬৫ জনকে ।

অপরাধ পরিসংখ্যান পর্যালোচনায় দেখা যায়, সেপ্টেম্বর মাসে ৪৬টি অপহরণ ছাড়া প্রতি মাসেই অর্ধশতাধিক অপহরণের ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে জানুয়ারি মাসে ৯৯ জন এবং জুলাই মাসে ৯৬ জন অপহরণের শিকার হয়।

এ সব নির্যাতন ও অপহরণের ঘটনা সম্পর্কে ঢাকা মহানগর পুলিশের যুগ্ম কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন, ২০১২ সালের তুলনায় এর মাত্রা কমেছে। বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে সর্বাত্মক চেষ্টা করা হচ্ছে এ ধরনের অপরাধ রোধ করা।

তিনি বলেন, শুধু পুলিশ নয় সমাজের সর্বস্তরের মানুষকেই এ ধরনের অপরাধ রোধ করতে এগিয়ে আসতে হবে।

(দ্য রিপোর্ট/এইচএ/এআইএম/ এমডি/লতিফ/জানুয়ারি ০১, ২০১৪)

পাঠকের মতামত:

এ বিভাগের অন্যান্য সংবাদ

M

M

SMS Alert

ফিরে দেখা ২০১৩ এর সর্বশেষ খবর

ফিরে দেখা ২০১৩ - এর সব খবর



রে