thereport24.com
ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অক্টোবর ২০১৭, ৪ কার্তিক ১৪২৪,  ২৯ মহররম ১৪৩৯

‘তড়িঘড়ি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের বৈঠক দুঃখজনক’

২০১৭ আগস্ট ১০ ১৬:৫৩:৫৯
‘তড়িঘড়ি সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের বৈঠক দুঃখজনক’

দ্য রিপোর্ট প্রতিবেদক : ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশের পর সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের তড়িঘড়ি বৈঠক করাকে দুঃখজনক বলে মন্তব্য করেছেন আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

সচিবালয়ে বৃহস্পতিবার (১০ আগস্ট) ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের প্রতিক্রিয়া জানাতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।

গত ৬ আগস্ট প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের বৈঠক হয়। এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘আমি মনে করি এতদিন পরে তড়িঘড়ি করে এই রায়টা দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলের যে বৈঠক ডাকা হয়েছে তা দুঃখজনক।’

ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ের বিরুদ্ধে জনমত গঠন করা হচ্ছে, এটাকে অশনিসংকেত হিসেবে দেখছে বিএনপি- এ বিষয়ে মন্তব্য জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘দেখেন, আমি একটা কথা বলি। ওনারা কোর্ট মানেন না। বিচারককে ওনারা সম্মান দেখান না। একজন জামিনপ্রাপ্ত আসামি বিদেশ চলে যান। কোর্টের কোন পারমিশন নেন না। এভাবে কোর্টকে অবজ্ঞা করেন। সেক্ষেত্রে ওনাদের মুখে আইনের শাসন, আর এসব কথা সাজে না। ওনারা আগে ওইসব ঠিক করে তারপর উপদেশ দিতে আসুক। তারপর আমি গ্রহণ করব।’

আপনারা কি এই রায় আইনগতভাবে নয় রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করতে চাচ্ছেন- জানতে চাইলে আনিসুল হক বলেন, ‘আমরা এই রায় আইনগতভাবেই মোকাবেলা করব। আমাদের এমন কোন অভিপ্রায় নেই যে এটাকে রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলা করবো। এখানে (রায়ে) যে সব রাজনৈতিক বক্তব্য আনা হয়েছে, যেসব ইতিহাস উল্লেখ করা হয়েছে, গঠনমূলক আলোচনার জন্য রাজনীতিবিদরা যদি তা ধরে কোন বক্তব্য দেন আমার মনে হয় না এটা রাজনৈতিকভাবে মোকাবেলার শামিল।’

বিচার বিভাগ ও নির্বাহী বিভাগ মুখোমুখী দাঁড়িয়ে গেছে কিনা জানতে চাইলে আইনমন্ত্রী বলেন, ‘এক দমই না।’

সংবিধানের ৭০ অনুচ্ছেদ (দলের বিরুদ্ধে ভোট দিলে এমপি পদ বাতিল) থাকায় বিচারপতি অপসারণে সংসদ সদস্যরা কি নিরপেক্ষ ভূমিকা রাখতে পারতেন- এ বিষয়ে আনিসুল হক বলেন, ‘এটা কিন্তু সংসদে পরিষ্কার করা আছে তারা ফ্রি ভোট দিতে পারবেন। তাহলে ওনারা রায়ে বলেছেন ৭০ অনুচ্ছেদের জন্য ষোড়শ সংশোধনী বিতর্কিত হবে, এটা কিন্তু ঠিক নয়। ওনারা এটা সম্বন্ধে জানেন না পার্টি ভোট দেবে না ফ্রি ভোট হবে। এমনও হতে পারে, আমরা যে খসড়া আইন করেছিলাম, আমরা যে পদ্ধতি দিয়েছিলাম সেখানে কিন্তু পার্টি লাইনে ভোট হবে এমন কথা ছিল না, এমন কোন ইঙ্গিতও ছিল না। ৭০ অনুচ্ছেদ সম্পর্কে যে বক্তব্য দেওয়া হয়েছে তা কিন্তু তথ্য নির্ভর নয়।’

রায়ের পর্যবেক্ষণে নির্বাচন কমিশন, জাতীয় সংসদসহ অনেক অপ্রাসঙ্গিক বিষয় এসেছে বলে আপনি জানিয়েছেন, এটা আদেশের অংশ নয়, তাই সরকারের জন্য এটা মানা কতটা জরুরি- আনিসুল হক বলেন, ‘ইট ইজ অ্যান অবজারবেশন অব কোর্ট, নট এনি কোর্ট, হায়েস্ট কোর্ট অব দ্য কান্ট্রি। সেখানে এসব যদি অপ্রাসঙ্গিক হয়ে থাকে, তাহলে আমাদের নিশ্চয়ই এটা দেখতে হবে এবং দেখে এর বিরুদ্ধে বা স্বপক্ষে ব্যবস্থা নিতে হবে।’

১৯৭২ সালের সংবিধানের অন্যান্য বিষয়গুলো সরকার ফিরিয়ে আনবে কিনা- এ বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘সংবিধান হচ্ছে জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন, সময়ে সময়ে জনগণের ইচ্ছা যদি বদলায় এটা এমেন্ড করা যায়। জনগণের ইচ্ছার প্রতিফলন হলে আমরা নিশ্চয়ই সেগুলো পরিবর্তন করব।’

(দ্য রিপোর্ট/এমআর/এপি/এনআই/আগস্ট ১০, ২০১৭)

পাঠকের মতামত:

SMS Alert

অপরাধ ও আইন এর সর্বশেষ খবর

অপরাধ ও আইন - এর সব খবর



রে